1. engg.robel@gmail.com : Shah Mohammad Robel : Shah Mohammad Robel
  2. alamgirtekcip@gmail.com : CollectionNews :
মঙ্গলবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৭:৫৭ অপরাহ্ন

একজন আবুল কালাম : আওয়ামীলীগে সুদীর্ঘ ২৬ বছরের বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবন !!

  • আপডেট টাইম সোমবার, ২৮ অক্টোবর, ২০১৯
  • ১২ নিউজটি পড়া হয়েছে

 

মিজানুর রহমান মিজান,টেকনাফ ::
সাবেক ছাত্রনেতা ও বর্তমান টেকনাফের রাজনৈতিক অঙ্গণে পরিচ্ছন্ন মানের সক্রিয় নেতা আবুল কালাম।টেকনাফের বহুল প্রচারিত জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল ডেইলি টেকনাফের সাথে শেয়ার করলেন আওয়ামীলীগের সুদীর্ঘ ২৬ বছরের বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবনের নানা অভিজ্ঞতার কথা। গত ২৬ অক্টোবর সাবরাং কমিউনিটি সেন্টার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে তাঁর ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠানে ব্যক্তিগত এক আলাপচারিতায় এসব রাজনৈতিক অভিজ্ঞতার স্মৃতিচারণ করেন আবুল কালাম। সাথে ছিলেন টেকনাফ বাজার ব্যবসায়ী মোঃ আলমগীর। আওয়ামীলীগের দূর্দিনে কক্সবাজার জেলাব্যাপি রাজপথে থেকে অনেক ত্যাগের মধ্য দিয়ে দলকে সুসংঘঠিত রাখা দূরদর্শি ও পরিচ্ছন্ন এ নেতা
সুদীর্ঘ ২৬ বছর যাবত বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের রাজনীতির সাথে সরাসরি জড়িত, পেশায় একজন ব্যবসায়ী, সৎ, পরোপকারী ও নিরহংকারী তরুণ সমাজসেবক।
আবুল কালাম সাবরাং ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের অন্তর্গত আছারবনিয়া নিবাসী সাবরাং আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা ও ব্যবসায়ী নেতা হাজ্বী মৃত ছৈয়দূর রহমানের ছেলে। ছৈয়দূর রহমান ও নাছিমা খাতুন দম্পতির ৯ ছেলে মেয়ের মধ্যে আবুল কালাম ৪নং ছেলে।

তিনি সাবরাং সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৫ম শ্রেণী,পরবর্তীতে টেকনাফ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ে মাধ্যমিক পড়ালেখা শেষ করেন। টেকনাফের ইতিহাসের বরেণ্য শিক্ষক অসংখ্য আলোকিত মানুষ গড়ার কারিগর মরহুম মোজাহের স্যারের ছাত্র হওয়ার গৌরব অর্জনে সক্ষম হন আবুল কালাম। মূলত আদর্শগত চারিত্রিক গঠন শুরু সেই সুচনাতেই তাইতো নিজের রক্ত কনিকায় মিশে যায় সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী,নির্যাতিত,নিস্পেষিত,অধিকারহীন বাঙালির মুক্তির মহানায়ক বিশ্ববন্ধু বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ। টেকনাফের আওয়ামী রাজনীতিতে আদর্শগত রাজনীতি চর্চা করেই এখনও বেচে আছেন আবুল কালাম। নিজ দল থেকে মূল্যায়ন করলো বা করলোনা সেদিকে কোন অভিযোগ অনুযোগ ক্ষুভ বা দুঃখ কোনটিই নেই, বঙ্গবন্ধুকে ভালবেসে বঙ্গবন্ধুর আদর্শের কাছে নিজেকে বিলীন করেছেন এবং মরণ অবদী এই আদর্শ লালন করার অঙ্গীকার ব্যাক্ত করেন আবুল কালাম। নিজেকে রাজনীতিবিদ ভাবেন কিনা এ প্রশ্নের উত্তরে নিজেকে জননেত্রী শেখ হাসিনার একজন ক্ষুদ্র কর্মী ছিলাম আছি এবং আমরন থাকার কথা বলেন।

১৯৯৬ সালে সক্রিয়ভাবে আওয়ামীলীগের রাজনীতির মাধ্যমে শুরু করেন রাজনৈতিক জিবন।রাজনৈতিক জীবনে তিনি আওয়ামী যুবলীগ টেকনাফ উপজেলা শাখার সভাপতি (১৯৯২-২০০১), কক্সবাজার জেলা আওয়ামী যুবলীগ এর সহ সভাপতি এর দায়িত্ব পালন করেন (২০০৬-২০১৮)।

বিনয়ী এই নেতা উপজেলা আইন শৃংখলা ও মাদক চোরাচালান কমিটির সদস্য,টেকনাফ উপজেলা কমিউনিটি পুলিশিংয়ের সাধারণ সম্পাদক,সাবরাং উচ্চ বিদ্যালয়ের অভিবাবক কমিটির সদস্য, নয়াপাড়া আলহাজ্ব নবী হোসাইন উচ্চ বিদ্যালয়ের দাতা সদস্য, কমিউনিটি সেন্টার সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি, টেকনাফ কমিউনিটি পুলিশের সাধারণ সম্পাদক এবং সাবরাং দারুল উলুম মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা কমিটির সদস্য। বর্তমনে তিনি জেলা আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে সক্রিয়ভাবে জড়িত আছেন। সফল পিতা আবুল কালামের দুই ছেলে বর্তমানে ঢাকা বিশ্ব বিদ্যালয়ে পড়াশুনা করছেন।

আবুল কালাম সাবরাং ইউনিয়নকে মডেল ইউনিয়নে রূপান্তর করার পাশাপাশি টেকনাফ উপজেলার শিক্ষাক্ষেত্রে উন্নয়নমূলক পদক্ষেপ গ্রহণ ও মাদকমূক্ত তরুন সমাজ গঠনের প্রতিশ্রুতি নিয়ে সরকারের গৃহীত সকল কার্যক্রমে কাঁদে কাঁদ মিলিয়ে কাজ করে যাবেন বলে প্রতিশ্রুতি দেন। ভবিষ্যতেও সাধারণ মানুষের জন কল্যাণে কাজ করাসহ স্থানীয়দের ভাগ্যোন্নয়নে কাজ করার কথা জানান।

(এই রিপোর্ট অনুমতি ছাড়া কপি না করার অনুরুধ রইল)

প্রতিবেদকঃ- মিজানুর রহমান মিজান
ডেইলি টেকনাফ, আলোকিত বিডি!

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..