চিকিৎসার জন্য ফ্ল্যাট বিক্রি করছেন ক্রিকেটার রুবেল!

15

কালেকশন ডেক্স ::
নিজের চিকিৎসার জন্য টাকা ম্যানেজ করতে শেষ পর্যন্ত নিজের ফ্ল্যাট বিক্রির সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ব্রেন টিউমারে আক্রান্ত টাইগার ক্রিকেটার মোশাররফ হোসেন রুবেল।

গত ১৯ মার্চ সিঙ্গাপুরে মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে মোশাররফ হোসেন রুবেলের মস্তিষ্কে সফল অস্ত্রোপচার সম্পন্ন হয়। বায়োপসি রিপোর্টও এসেছিল পজেটিভ। রিপোর্ট থেকে জানা যায় যে, ৩৭ বছর বয়সী এই বাঁহাতি স্পিনারের মস্তিষ্কের টিউমারে ক্যানসারের জীবাণু পাওয়া যায়নি।

তবে পরে জানা যায় টিউমারের জীবাণু পুরোপুরি অপসারণ করা সম্ভব হয়নি। বাধ্য হয়ে কেমো ও রেডিওথেরাপির আশ্রয় নেন ব্রেন টিউমারে আক্রান্ত জাতীয় দলের এই ক্রিকেটার। এজন্য চলতি বছরের ২৩ এপ্রিল আবারও সিঙ্গাপুরে ছুটে যান ঘরোয়া ক্রিকেটের নিয়মিত সাফল্য পাওয়া এই খেলোয়াড়।

সিঙ্গাপুরে ইতোমধ্যে ২০টি রেডিওথেরাপি সফলভাবে নিয়েছেন দীর্ঘদেহী রুবেল। এখনো ৬টি কেমোথেরাপি নিতে হবে তাকে। এজন্য দরকার আরও ৫০ লাখ টাকা। চিকিৎসার জন্য এই টাকা যোগাতে ফ্ল্যাট বিক্রির সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এই তথ্য জানিয়েছেন রুবেল নিজেই। এ সময় দেশবাসীর কাছে দোয়াও চেয়েছেন এই ক্রিকেটার।

সোমবার (৮ জুলাই) বিকেলে ব্যক্তিগত ফেসবুক অ্যাকাউন্টে তিনটি ছবি পোস্ট করেন রুবেল। ছবির ক্যাপশনে তিনি লেখেন, ‘এখন কেমোথেরাপির সঙ্গে যুদ্ধ করার সময়। এরই মধ্যে চিকিৎসা বাবদ আমি ১ কোটি টাকা খরচ করে ফেলেছি। এখন আরও ৬টি কেমোথেরাপির জন্য ৫০ লাখ টাকা দরকার। এজন্য আমার ১৫৫০ স্কয়ার ফিটের ফ্ল্যাটটি বিক্রি করা দরকার। যদি কেউ কিনতে আগ্রহী থাকেন তাহলে দয়া করে আমার সঙ্গে যোগাযোগ করুন এবং অবশ্যই আপনাদের কাছে দোয়া চাইছি। আপনাদের দোয়ার কারণে আমি এখনো বেঁচে আছি। আল্লাহ আমাদের সবাইকে ক্ষমা করুক। ধন্যবাদ।’

এর আগে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) ষষ্ঠ আসর চলাকালীনই শারীরিক সমস্যার কথা বুঝতে পারেন রুবেল। রাতে প্রায়ই তার খিঁচুনি উঠত। পরীক্ষা-নিরীক্ষা করাতে গিয়ে রুবেল জানতে পারেন তার ব্রেনে গ্লিওমা নামক টিউমার হয়েছে।

এ ধরনের টিউমার সাধারণত মস্তিষ্কের কোষ অথবা মেরুদণ্ড থেকে জন্ম নেয়। ব্রেনে টিউমার হয়েছে জেনে স্বাভাবিকভাবে খানিকটা থমকে পড়েন রুবেল। তবে ভেঙে না পড়ে চিকিৎসা নেওয়ার প্রস্তুতি নেন তিনি। গেল ১৪ মার্চ অস্ত্রোপচার করাতে সিঙ্গাপুরের উদ্দেশে দেশ ছাড়েন তিনি।

সেখানে পৌঁছানোর পাঁচ দিনের মাথায় মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালের চিকিৎসক আলভিন হং রুবেলের অস্ত্রোপচার করেন। সফল অস্ত্রোপচারের কিছুক্ষণ পরই জ্ঞান ফেরে রুবেলের। পরে গেল ৩০ মার্চ দেশে ফিরেও আসেন তিনি। পরবর্তীতে জীবাণু ধরা পড়লে এপ্রিলে কেমো ও রেডিওথেরাপি নিতে আবারও সিঙ্গাপুরে যান মোশাররফ রুবেল।

সূত্র : একুশে টেলিভিশন

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here