স্থানীয় সরকার নির্বাচনে টেকনাফ সদর ইউপির সম্ভাব্য চেয়ারম্যান ও মেম্বার প্রার্থীদের আগাম গনসংযোগ

106

 

মোঃ আলমগীর,টেকনাফ ::

তফসিল ঘোষণার দুই বছর বাকি থাকলেও কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও মেম্বার পদে সম্ভাব্য প্রার্থীরা মাঠে নেমেছেন। ব্যাপক গণসংযোগ আর উঠান বৈঠক করছেন। সরগরম রাজনীতির মাঠ। সর্বত্র আলোচনা চলছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ থেকে কে হচ্ছেন চেয়ারম্যান ও মেম্বার প্রার্থী। তবে সম্ভাব্য ২ জন এরইমধ্যে গণসংযোগ শুরু করেছে।

দলীয় সমর্থন পেতে জোর চেষ্টা-তদবির শুরু করেছেন সম্ভাব্য প্রার্থীরা। পাশাপাশি ভোটারদের বাড়ি বাড়ি যাচ্ছেন প্রার্থিতা জানান দিতে। সালাম বিনিময় আর ভোটারদের খোঁজখবর নিচ্ছেন। অনুসন্ধানে জানা যায়, টেকনাফ সদর ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের সম্ভাব্য প্রার্থীরা হলেন বর্তমানে প্যানেল চেয়ারম্যান-২, ব্যবসায়ী সদর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহসভাপতি দুই দুই বার বিপুল ভোটে নির্বাচিত আবু সৈয়দ মেম্বার। এবং স্কুল, মাদ্রাসার অসহায় গরীব দুঃখি শিক্ষার্থীদের সহোযোগিতা করছেন। এবং তিনি জঙ্গি, সন্ত্রাস, ও মাদক মুক্ত করবেন। এবং নিজ নিজ এলাকায় গরীব দুঃখি মানুষের মাঝে শাড়ি, লুঙ্গি, তামি, যারা চিকিৎসার অভাবে বিভিন্ন রোগে ভুগছেন তাদেরকে সাহায্য সহোযোগিতা করে যাচ্ছেন।

এবং অপর সম্ভাব্য মেম্বার প্রার্থী বড় হাবীব পাড়া সামাজিক সংগঠন কিশোর সেনা ক্লাবের সভাপতি, টেকনাফ পৌর টমটম ও রিক্সা সংগঠনে সাবেক মেম্বার এবং বিশিষ্ট গরু ব্যবসায়ী ও সমাজ সেবক জিয়াউর রহমান।

তফশিল ঘোষণার এক বছর এগারো মাস সময় থাকলেও এর আগেই সম্ভাব্য প্রার্থীরা গণসংযোগ দলীয় নেতাকর্মীদের মাঝে ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছে। আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা মনে করেন সম্ভাব্য টেকনাফ সদর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান প্রার্থী, প্যানেল চেয়ারম্যান-২ আবু সৈয়দ মেম্বার এ-র একটা ইমেজ রয়েছে। বিগত দিনে সদর ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার থাকাকালীন তার কার্যক্রম ভোটাররা ইতিবাচক দৃষ্টিতে দেখবেন বলে মনে করছেন তারা। অন্যদিকে সম্ভাব্য মেম্বার প্রার্থী জিয়াউর রহমান অধিকারী ব্যাচারও ক্ষেত্রে একই বিষয় কাজ করছে। তিনি বেশ কয়েকবার সামাজিক সংগঠন পৌর টমটম ও রিক্সা শ্রমিক সংগঠনে নির্বাচিত হয়েছিলেন। তবে আওয়ামীলীগের ঐক্য ধরে রাখতে পারলে দলীয় প্রার্থীর জয়ের সম্ভাবনা উজ্জ্বল বলে মনে করছেন নেতাকর্মীরা। তবে চেয়ারম্যান ও মেম্বার পদে অন্যকোনো রাজনৈতিক দলের প্রার্থীদের ভোটের মাঠে এখনো দেখা যায়নি।

টেকনাফ উপজেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহসভাপতি জহির হোসেন এমএ জানান, সৎ ও যোগ্য প্রার্থী চাই। রাজনৈতিক দলগুলোর উচিত এ বিষয়গুলো বিবেচনা রেখে প্রার্থী নির্বাচন করা।

টেকনাফ সদর ইউনিয়নের বড় হাবীব পাড়া থানার ডেইল মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক মৌঃ মুহাম্মদ তৈয়ব জানান, এলাকার উন্নয়নের স্বার্থে নিবেদিতপ্রাণ- এমন প্রার্থী চাই। সদরের মৌলভী পাড়া বাজারের চা বিক্রেতা বশির আহমেদ জানান, রাজনৈতিক দলগুলো নিষ্ঠাবান ব্যক্তিদের মনোনয়ন দিলে এলাকার উন্নয়ন হবে। এলাকার উন্নয়নে কাজ করবে- এমন প্রার্থীকেই ভোট দেব।

টেকনাফ সদর ইউনিয়ন ০৮নং ওয়ার্ডের সম্ভাব্য মেম্বার প্রার্থী বিশিষ্ট সমাজ সেবক গরু ব্যবসায়ী জিয়াউর রহমান জানান, এ ওয়ার্ড থেকে ভবিষ্যতে নির্বাচিত হলে, বড় হাবীব পাড়া, মৌলভী পাড়া, নাজির পাড়া, শীল বনিয়া পাড়া, সুদার পাড়া, এবং স্কুল, মাদ্রাসা অসহায় গরীব দুঃখি মেহনতী মানুষের সাথে থাকবেন। এবং জঙ্গি, সন্ত্রাস, ও মাদক মুক্ত করবেন। এবং নিজ নিজ এলাকায় গরীব দুঃখি মানুষের মাঝে শাড়ি, লুঙ্গি, তামি, যারা চিকিৎসার অভাবে বিভিন্ন রোগে ভুগছেন তাদেরকে সাহায্য সহোযোগিতা করতেছেন। এবং অত্র ০৮নং ওয়ার্ডে মোট ভোটার ২ হাজার ৯৫৩ জন।

টেকনাফ সদর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন!
সদর ইউপির নির্বাচন হয়েছিল ২২-৩-২০১৬ইং, গেজেট ১০-৫-১৬ইং, শপথ ২৬-৫-১৬ইং, প্রথম সভা ২৯-৫-১৬ইং, মেয়াদ উত্তীর্ণ হবে ২৮-৫-২০২১ইং, আগামী এক বছর এগারো মাস ছয় দিন পর মেয়াদ উত্তীর্ণ হবে সদর ইউনিয়ন পরিষদের।

অপর সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী বার বার মেম্বার নির্বাচিত বিশিষ্ট সমাজসেবক গরু ব্যবসায়ী আবু সৈয়দ মেম্বার জানান, দীর্ঘদিন ধরে তিনি নেতাকর্মীদের চাঙ্গা রাখতে কাজ করছেন। টেকনাফ উপজেলার সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন দেবেন বলে আশাবাদী তিনি। ৯টি ওয়ার্ড নিয়ে সদর ইউনিয়ন গঠিত। সদর ইউনিয়নে মোট ভোটার ২৫ হাজার ৩৯২ জন।

এ উপজেলায় মোট ভোটার ১ লক্ষ ৪৫ হাজার ৬২১ জন। সদর ইউনিয়নে মোট ভোটার ২৫ হাজার ৩৯২ জন। তত্ত্বটি টেকনাফ নির্বাচন অফিস সূত্র থেকে জানাযায়।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here